ভাষা শহীদ আবদুস সালাম স্মৃতি যাদুঘর প্রাঙ্গনে ভাষার মাসে মাসব্যাপি বই মেলার আয়োজন করা হোক

এমরান হোসেন পারভেজ 

ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম। মাতৃভাষা বাংলা বাদ দিয়ে উর্দু চাপিয়ে দেওয়ার মিথ্যা অপচেষ্টাকে রুখে দিতে, ১৯৫২ সালে ২১ শে ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানি বাহিনীর ১৪৪ ধারা ভঙ্গকরে, যারা বুকের রক্ত ঢেলে দিয়ে প্রাণ বিসর্জন দিয়েছিলেন তাদের মধ্যে শহীদ সালাম অন্যতম।

বাংলার স্বাধিকার স্বাধীনতা আন্দোলন শুরু হয় তখন থেকে, যখন বাংলার দামাল ছেলেরা রক্ত দিতে শিখিয়ে দিয়েছে। আর তারা অন্য কেউ নয়, তারা হলেন মহান ভাষা শহীদরা।

আর তাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও স্মৃতিচারণ করতে বাংলাদেশে ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকাতে বাংলা একাডেমী বর্ধমান হাউসে বই মেলা হলেও যারা শহীদ হয়েছেন, তাদের এলাকাতে বই মেলার কোন উদ্যোগ এখনো চোখে পড়েনি। বাংলাদেশ সরকার প্রধানরা ভাষা শহীদদের জন্য অনেক পদক্ষেপ করেছেন, করতেছেন বা ভবিষ্যতেও করবেন, এতে কোন সন্দেহ নাই।

যেমনঃ
? মহান ভাষা আন্দোলনে আবদুস সালাম অনবদ্য ভূমিকা রাখায় বাংলাদেশ সরকার তাঁকে ২০০০ সালে একুশে পদক (মরণোত্তর) প্রদান করেন।

? ফেনী স্টেডিয়ামের নাম পরিবর্তন করে ২০০০ সালে ‘ভাষা শহীদ সালাম স্টেডিয়ামে’ রূপান্তর করা হয়।

? দাগনভুঞা উপজেলা মিলনায়তনকে ২০০৭ সালে ‘ভাষা শহীদ সালাম মিলনায়তন’ করা হয়।

? ২০০৮ সালে তাঁর নিজ গ্রাম লক্ষ্মণপুরের নাম পরিবর্তন করে ‘সালাম নগর’ রাখা হয়।

অবশ্যই এই কাজ গুলো ছিলো প্রশংসনীয়, তাই এজন্য আমরা দাগনভূঞা বাসীর পক্ষ থেকে সরকারকে আন্তরিক সাধুবাদ ও মোবারকবাদ জানাই।

আমরা আরো বলতে চাই ২০০৮ সালে লক্ষণপুর গ্রামের নাম পরিবর্তন করে সালাম নগর রাখা হলেও, লক্ষণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টির নাম পরিবর্তন হয়নি, যা শহীদ সালামের বাড়ীর পাশে।

আমাদের দাবী হল, লক্ষণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টির নাম পরিবর্তন করে, সালাম নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় করা হোক।

তারপাশে বলতে চাই, মহান আত্মত্যাগী এই দামাল ছেলেদের স্মৃতিচারণ করতে, এবছর থেকে ফেব্রুয়ারি মাসে শহীদ সালাম সহ, সকল ভাষা শহীদদের গ্রামের এলাকায় মাস ব্যাপী বই মেলার আয়োজন চাই।

পরিশেষে বলতে চাই, উন্নতির শিখরে উঠতে হলে প্রয়োজন শিক্ষা। শিক্ষার জন্য যেমন বই দরকার, তেমনি দরকার একটা আলোকিত বিবেক। তাই আপনার বিবেককে আলোকিত করে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে সালাম নগরের বই মেলার প্রতি সবাইকে সচেষ্ট করে তলুন।

 

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *