ভারতকে হারিয়ে এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

শেষ বলে জেতার জন্য দরকার ছিল ২ রান। জাহানারা আলম ডাউন দ্য উইকেটে এসে ঘুরালেন। বল মিড অনে রেখে জান বাজি রেখে দৌঁড়। ২ রান নিয়ে উল্লাস। ভারতকে হারিয়ে এই প্রথম এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টিতে চ্যাম্পিয়ন  হয়েছে বাংলাদেশ নারী দল। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এমন সম্ভাবনার কথা কেউ ঘুনাক্ষরেও ভাবেনি।

রোববার মালোয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে ভারতকে মাত্র ১১২ রানে আটকে রাখে বাংলার মেয়েরা। ওই রান তাড়ায় শেষ বলে গিয়ে ৩ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ।

মেয়েদের এশিয়া কাপে ভারত ছাড়া কেউ কখনো চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। এবার সেই তালিকায় নাম উঠালো বাংলাদেশ। ছেলে-মেয়ে সব মিলিয়ে কোন এশিয়া কাপে এই প্রথম চ্যাম্পিয়ন হিসেবে নাম লেখালো বাংলাদেশ।  এশিয়া কাপ তো নয়ই, এর আগে  নারী-পুরুষ মিলিয়ে কখনো কোন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের শিরোপাও জেতেনি বাংলাদেশ। ছেলেরা দুবার ফাইনালে গিয়ে চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলেও প্রথমবার  ফাইনালে উঠেই জিতেছে সালমা খাতুনের দল।

১১৩ রানের লক্ষ্যটা ছোট হলেও ভারতের শক্তিশালী স্পিন আক্রমণের কারণে কাজটা সহজ ছিল না। সে লক্ষ্য অবশ্য শুরুটা বেশ ভালো করে বাংলাদেশ। দুই ওপেনিং ব্যাটার শামিমা সুলতানা ও আয়েশা রহমান এনে দেন দারুণ সূচনা।

সপ্তম ওভারে গিয়ে পুনম যাদবের বলে আউট হন দুজনেই। ওয়ানডাউনে নামা ফারজানা হক পিংকি ১১ রানে বেশি করতে পারেননি। তবে খেলার মোড় ঘুরিয়েছেন নিগার সুলতানা। এই ডানহাতি ব্যাটার অভিজ্ঞ ঝুলন গোস্বামীর এক ওভারে তিন চার মেরে খেলা নিজেদের দিকে নিয়ে আসেন। ২৪ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ২৭ রান করা নিগারের আউটের পর থমকে গিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে বোলিংয়ের মতো ব্যাট হাতেও ভরসার নাম হয়েছেন রুমানা আহমেদ। ২২ বলে ২৩ রান এক বল আগে রান আউট হন তিনি। তখন জেতার জন্যে দরকার ১ বলে ২ রান।

এর আগে টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে ভারতকে চেপে ধরেন রুমানা-খাদিজারা। নবম ওভারে মাত্র ৩২ রানে ভারতের ৪ উইকেট ফেলে দেয় বাংলাদেশ।  বাংলাদেশের স্পিনারদের চাপে সারাক্ষণই হাঁসফাঁস করেছে ভারতের মেয়েরা। কেবল ব্যতিক্রম ছিলেন হারমানপ্রিত কাউর। শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ৫৬ রান করেছেন তিনি। ভারত থামতে পারত আরও অল্প রানে। বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটার হারমানপ্রিত নিজের জাত চিনিয়ে ভারকে নিয়ে যান তিন অঙ্ক ছাড়িয়ে।

প্রায় সব ম্যাচেই বাংলাদেশের সেরা বোলার রুমানা এদিনও দেখিয়েছেন নিজের ঝলক। ৪ ওভার বল করে ২২ রানে নেন ২ উইকেট। ৪ ওভারে ২৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন খাদিজাতুল কুবরা।

এশিয়া কাপে গিয়ে কেবল প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হেরেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। এরপর একে একে জিতেছে তানা পাঁচ ম্যাচ। হারিয়েছে পাকিস্তান, ভারত, থাইল্যান্ড ও মালোয়েশিয়াকে। ফাইনালে ভারতে হারালো আরও একবার।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *