অনভিজ্ঞ হাতুড়ি ডাক্তারের ভুল পরামর্শে ৮ মাসের বাচ্চা সহ গরু জবাই

Spread the love

পরশুরাম উপজেলার পশ্চিম অলকা গ্রামে কোরবানীর উদ্দেশ্যে জবাইকৃত পশুর পেটে ৮ মাসের একটি বাচ্চা পাওয়া যায়।পরবর্তী সূত্রে জানা যায়! এই গরুটি তাদের পালিত গরু। গরুর পেটে বাচ্চা আছে মনে করে তারা সন্দেহর ভিত্তিতে তাদের স্থানীয় এক ডাক্তারের অবগত হন।

ডাক্তার গরুটিকে প্রথমবার দেখে বললেন যে! এই গরুর পেটে কোনো বাচ্চা নেই। এরপর তারা তাদের সন্দেহের উপর ভিত্তি করে আরো ৩ বার অই ডাক্তারকে গরুটি দেখায়। ৪ বার দেখার পরও ডাক্তার ১০০% সিওর দিয়ে বললো যে গরুর পেটে কোনো বাচ্চা নেই। এই সিদ্ধান্তে পৌছে তারা কোরবানীর উদ্দেশ্যে গরুটিকে জবাই করে। জবাই করার পর দেখা যায় গরুর পেটে ৮ মাসের একটি বাচ্চা।

এটা দেখার পর তারা সবাই আফসোসে লিপ্ত হয় এবংকি সাথে সাথে ডাক্তারকে ফোন করে ঘটনাস্থলে আসতে বলে। তখন ডাক্তার বলে যে! আমি এখন আসতে পারবো না, তারপর তারা ডাক্তারকে সবকিছু বুঝিয়ে বললে ডাক্তার বলে যে বাচ্চা যদি পেটে না থাকে তো আমি কোথা থেকে বলবো যে গরুর পেটে বাচ্চা আছে।

এখন স্থানীয় লোকদের সবার একটাই প্রশ্ন? গরুর পেটে যদি বাচ্চা নাই থাকতো তাহলে এই বাচ্চা কোথা থেকে আসলো। তিনি কেমন ডাক্তার? তিনি গরুটিকে ৪ বার চেকআপ করছেন। ৪ বার চেকআপ করার পরও যদি বুঝতে না পারেন যে! একটি গরুর পেটে ৮ মাসের একটি বাচ্চা আছে। তাহলে তিনি কেমন ডাক্তার।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *